1. nobinbogra@gmail.com : Md. Nobirul Islam (Nobin) : Md. Nobirul Islam (Nobin)
  2. bd.momin95@gmail.com : sojibmomin :
  3. bd.momin00@gmail.com : Abdullah Momin : Abdullah Momin
  4. bd.momin@gmail.com : Uttarkon2 : Uttar kon
আমের দাম দ্বিগুণ, এখনো জমেনি রাজশাহীর বাজার - Uttarkon
শুক্রবার, ২১ জুন ২০২৪, ১০:১৬ অপরাহ্ন

আমের দাম দ্বিগুণ, এখনো জমেনি রাজশাহীর বাজার

  • সম্পাদনার সময় : বুধবার, ২৯ মে, ২০২৪
  • ২৮ বার প্রদশিত হয়েছে

মাসুদ রানা রাব্বানী, রাজশাহী: রাজশাহী তথা উত্তরবঙ্গের সবচেয়ে বড় আমের বাজার বানেশ্বর বাজার। তবে আম সংকটে এখনও জমে ওঠেনি এই বাজার। ব্যবসায়ীরা বলছেন, আম পরিপক্ব না হওয়ায় বাজার জমে ওঠেনি। আশা ছিল গোপালভোগেই জমে উঠবে বাজার। তবে সেটি হয়নি। আর হাট ইজারাদাররা বলছেন, এবার কখন বাজার জমে উঠবে বলা মুসকিল। করাণ এবার আমের ফলন কম। ম্যাংগো ক্যালেন্ডার অনুসারে গত ২৫ মে থেকে জেলা প্রশাসনের ঘোষণা অনুযায়ী গোপালভোগ, লখনা বা লক্ষণভোগ ও রানীপছন্দ আম সংগ্রহ ও বাজারজাত শুরু হয়েছে। তবে আমের ফলন কম ও পরিপক্বতা কম থাকার করণে এখনো জমে ওঠেনি বাজার। প্রতিদনি গড়ে ১০০ থেকে ১৫০ মণ আম বিক্রি হচ্ছে বাজারে।
কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের তথ্য মতে, গত মৌসুমে রাজশাহী জেলায় আম উৎপাদন হয়েছিল ১৯ হাজার ৫৭৮ হেক্টর জমিতে। এ বছর জেলায় ১৯ হাজার ৬০২ হেক্টর জমিতে আম চাষ হচ্ছে। উৎপাদনের লক্ষ্যমাত্রা ধরা হয়েছে ২ লাখ ৬০ হাজার ৩১৫ মেট্রিক টন।
রাজশাহীর অন্যতম আমের হাট জেলার পুঠিয়া উপজেলার বানেশ্বর বাজার ঘুরে দেখা গেছে, হাটে আম আসছে খুব অল্প পরিসরে। তবে দাম বেশ চড়া। গত দুইবারের চেয়ে এবার প্রায় দ্বিগুণ দামে বিক্রি হচ্ছে গোপালভোগ আম। তবে এখনো জমে ওঠেনি এই বাজার। আবহাওয়া অনুকূলে না থাকায় আম পরিপক্ব হতে সময় লাগছে। এই করণেই হাটগুলো জমতে অপেক্ষা করতে হবে আরও অন্তত ১০ দিন।
বিড়ালদহ এলাকা থেকে হাটে আম নিয়ে এসেছেন মোঃ বিশু। তিনি বলেন, আজ হাটে গোপালভোগ ও গুটি আম নিয়ে এসেছি। হাটে গোপালভোগ ২৫০০ টাকা মণ বিক্রি হচ্ছে। গতবার এই সময় ১৩০০ টাকা মণ ছিল।
হাটের আড়ৎদার আব্দুল মতিন বলেন, এবার আমে লস খাবে না। পর্তা হয়েই কিনবো। আমের উৎপাদন কম। তাই দাম কমার সম্ভাবনা নেই। এখন প্রতিদিন ১০০ থেকে ২০০ মণ গোপালভোগ আম উঠছে। চাহিদাও বেশ ভালো। হাট এখনও জমেনি। ১০ থেকে ১৫ দিন লাগবে জমে উঠতে। মূলত আম পূর্ণ পরিপক্ব হয়নি। এবার আম নাবলা। তাই একটু সময় লাগবে বাজারে আসতে। সেজন্য হাটও জমতে বেশ সময় লাগবে।
তিনি বলেন, আজ হাটে ২৫০০ টাকায় গোপালভোগ আম কিনছি। গুটি ১৪০০ থেকে ১৬০০ মান ভেদে কিনছি। খুচরা ৫০ থেকে ৬০ টাকা দরে গুটি ও ৬০ থেকে ৭০ টাকা দরে গোপাল ভোগ বিক্রি হবে। কেজিতে ৪ থেকে ৫ টাকা লাভ হবে। এবার আমের উৎপাদন কম তাই দামও বেশি।
আমের ব্যাপারী বাবর আলী বলেন, গোপাল ভোগ আম কিনেছি ২৩৮০ টাকা দরে। এখনও আম তেমন আসেনি। পরিপক্ব কম, তাই আম বাজারে আসতে একটু সময় লাগবে। এবার গতবারের থেকে ডাবল দাম। তবে হাট এখনো জমে ওঠেনি। জমে উঠতে আরও সময় লাগবে। আমের দাম গতকালকের চেয়ে আজ কিছুটা কমেছে।
অনলাইন আম ব্যবসায়ী মাজিদুর রহমান বলেন, গোপাল ভোগ আম আজ ৫ ক্যারট কিনেছি। আজ ২৭০০ টাকা মণ কিনেছি। দাম তুলনামূলক বেশি। আম কম তাই বেশি দামেই কিনছি। আমরাতো এভাবেই রেট দিচ্ছি, আর অগ্রীম পেমেন্ট পেয়েই আম কিনছি।
বানেশ্বর হাট ইজারাদার জাহাঙ্গীর আলম বলেন, এবার এখনো আমের হাট জমে ওঠেনি। এবার আমের ফলনও কম। গোপালেও বাজার জমেনি। কবে নাগাদ জমে উঠবে সেটিও বলা মুসকিল। অন্যান্য বছর এই সময় আমের হাট এত জমে ওঠে যে রাস্তা বন্ধ হয়ে যায়। এবারতো তেমন কোনো কিছুই নেই। দেখি কবে জমে ওঠে। আশা করছি নওগাঁর সাপাহারের আমগুলো এই বাজারে আসতে শুরু করলেই বাজার জমে উঠবে। এখন প্রতিদিন ১০০ থেকে ১৫০ মণ আম বিক্রি হচ্ছে।

Please Share This Post in Your Social Media

এই বিভাগের আরও খবর
Copyright &copy 2022 The Daily Uttar Kon. All Rights Reserved.
Powered By Konvex Technologies