1. nobinbogra@gmail.com : Md. Nobirul Islam (Nobin) : Md. Nobirul Islam (Nobin)
  2. bd.momin95@gmail.com : sojibmomin :
  3. bd.momin00@gmail.com : Abdullah Momin : Abdullah Momin
  4. bd.momin@gmail.com : Uttarkon2 : Uttar kon
খাবারের জন্য ছুটছে এক এলাকা থেকে আরেক এলাকায় আদমদীঘিতে দলছুট হনুমানটি লোকালয়ে এসে বিপাকে - Uttarkon
শুক্রবার, ১৪ জুন ২০২৪, ০৯:২৯ অপরাহ্ন

খাবারের জন্য ছুটছে এক এলাকা থেকে আরেক এলাকায় আদমদীঘিতে দলছুট হনুমানটি লোকালয়ে এসে বিপাকে

  • সম্পাদনার সময় : শুক্রবার, ৮ অক্টোবর, ২০২১
  • ১২২ বার প্রদশিত হয়েছে

আদমদীঘি (বগুড়া) প্রতিনিধিঃ দলছুট একটি হনুমান বন ছেড়ে লোকালয়ে এসে চরম বিপাকে পড়েছে। প্রায় এক সপ্তাহ ধরে হনুমানটি নওগাঁ জেলার বিভিন্ন উপজেলায় থাকার পর দুদিন ধরে এসে রয়েছে বগুড়ার আদমদীঘি উপজেলার সান্তাহার জংশন শহরে। বর্তমানে এটি অবস্থান করছে সান্তাহার জংশন ষ্টেশনে। খাবারের সন্ধানে হনুমানটি এক এলাকা থেকে আরেক এলাকায় ছুটে ফিরছে। কিছু মানুষ তার দিকে খাবার ছুড়ে দিলেও বেশির ভাগ ক্ষেত্রে খাবারগুলো তাঁর পছন্দমত না হওয়ায় গ্রহন করছে না। খাবারের পাশাপশি আরো বড় সমস্যা হয়ে দাড়িয়েছে মানুষের অত্যাচার। যেখানেই সে যাচ্ছে সেখানেই জড় হচ্ছে শত শত উৎসুক জনতা। এসব মানুষদের মধ্যে কেউ তার দিকে ছুড়ছে ঢিল, আবার কিশোরদের মধ্যে কেউ করছে লাঠিপেটা। বাস্তব অবস্থা দেখে মনে হচ্ছে হনুমানটিকে রক্ষা বা উদ্ধার করার কেউ নেই। গত পাঁচ ছয় দিন যাবৎ এটি নওগাঁ জেলা শহরসহ বিভিন্ন উপজেলায় বিচরন করলেও প্রশাসনের পক্ষ থেকে তাকে উদ্ধারের কোন উদ্যেগ নেয়া হয়নি। সরেজমিন শুক্রবার দুপুরে এটিকে দেখা যায় সান্তাহার জংশন ষ্টেশনের একটি গাছে। অসংখ্য মানুষ ও ট্রেন যাত্রী তাকে দেখার জন্য সেখানে হাজির হয়েছেন। সান্তাহার জংশন ষ্টেশনের পত্রিকার এজেন্ট দিলদার হোসেন সাংবাদিক দেখে এগিয়ে এসে বলেন, ভাই হনুমানটি রক্ষা করেন। ওর বিষয়ে কিছু লেখেন, যাতে প্রশাসনের কারো নজর পড়ে। হনুমানটি দ্রুত উদ্ধার করে নিয়ে না গেলে না খেয়ে ও মানুষের অত্যাচারে নিশ্চিত এটি মারা যাবে। এটির ছবি তোলার সময় সাংবাদিক পরিচয় জেনে অনেক ট্রেন যাত্রী হনুমানটিকে রক্ষা করার জন্য অনুরোধ করেন। হুনমানটি সান্তাহার শহরে আসার পর এটিকে উদ্ধারের বিষয়ে বৃহস্পতিবার রাতে আদমদীঘি ্উপজেলা নির্বাহী অফিসার শ্রাবণী রায়ের সাথে মুঠোফোনে কথা হলে তিনি বলেন, হনুমানটিকে উদ্ধারের জন্য উপজেলা বন কর্মকর্তাকে অবহিত করা হয়েছে। আশা করছি শুক্রবার সকালের মধ্যে এটিকে বন বিভাগ নিয়ে যাবে। কিন্তু শুক্রবার বিকেল পর্যন্ত এটিকে উদ্ধারে বন বিভাগের কাউকে পাওয়া যায়নি। অনেকে ৯৯৯-এ ফোন দিয়েও কোন কাজ হয়নি। আদমদীঘি উপজেলার দায়িত্বপ্রাপ্ত বন কর্মকর্তা আক্তারুজ্জামান মুঠোফোনে বলেন, বিষয়টি ইউএনও মহোদয় তাকে জানিয়েছেন। কিন্তু হনুমানটি ধড়ার কোন সরঞ্জাম তাদের কাছে না থাকায় এটিকে উদ্ধার করা সম্ভব হচ্ছেনা। বিষয়টি ঢাকায় প্রধান কার্যালয়কে অবহিত করা হয়েছে।

Please Share This Post in Your Social Media

এই বিভাগের আরও খবর
Copyright &copy 2022 The Daily Uttar Kon. All Rights Reserved.
Powered By Konvex Technologies