1. nobinbogra@gmail.com : Md. Nobirul Islam (Nobin) : Md. Nobirul Islam (Nobin)
  2. bd.momin95@gmail.com : sojibmomin :
  3. bd.momin00@gmail.com : Abdullah Momin : Abdullah Momin
  4. bd.momin@gmail.com : Uttarkon2 : Uttar kon
আদমদীঘির সান্তাহারে নির্মান হচ্ছে মুক্তিযোদ্ধা স্মৃতি স্তম্ভ - Uttarkon
বুধবার, ১৯ জুন ২০২৪, ১০:৩৪ অপরাহ্ন

আদমদীঘির সান্তাহারে নির্মান হচ্ছে মুক্তিযোদ্ধা স্মৃতি স্তম্ভ

  • সম্পাদনার সময় : বুধবার, ৩০ আগস্ট, ২০২৩
  • ৪৯ বার প্রদশিত হয়েছে

আদমদীঘি (বগুড়া) প্রতিনিধিঃ দীর্ঘ সাত বছর পর শ্রমিক সংগঠনের কব্জা থেকে দখল মুক্ত করা এবং নতুন নক্সায় শহীদ বীর মুক্তিযোদ্ধাদের নামের সেই স্মৃতিস্তম্ভ নির্মান কাজ প্রায় শেষ পর্যায়ে। আদমদীঘি উপজেলা নির্বাহী অফিসারের উদ্যোগে সান্তাহার পৌরসভা কর্তৃপক্ষ চলতি বছরের মে মাসে ‘বীর মুক্তিযোদ্ধা মনুমেন্ট’ নামক কাজের দরপত্র আহবান করে। দরপত্রের মাধ্যমে মেসার্স নাসীফ কন্সট্রাকশন নামের ঠিকাদার প্রতিষ্ঠান নির্মান কাজ করছেন।
জানা গেছে, মুক্তিযুদ্ধের মফস্বল শহরগুলো মধ্যে সান্তাহার অন্যতম। স্বাধীনতার পর বগুড়ার আদমদীঘি উপজেলার সান্তাহার জংশন স্টেশনের রেলওয়ে লেভেল ক্রসিংয়ের পশ্চিম প্রান্তে স্থানীয় মুক্তিযোদ্ধারা নির্মান করে মাত্র পাঁচ ফুট উচ্চতার স্মৃতি স্মম্ভ। ওই স্তম্ভে মুক্তিযুদ্ধে শহীদ চার বীর মুক্তিযোদ্ধার নামে চার সড়কের নাম করণ করা হয়। কিন্তু রক্ষাণাবেক্ষনে অবহেলা ও উদাসিনতার কারনে এক সময় শ্রীহীন হয়ে পড়ে স্মৃতি স্তম্ভটি। মানুষ ভুলে যেতে বসে শহীদ চার বীর মুক্তিযোদ্ধার নামের সড়কের নাম। এমন অবস্থায় ২০১৬ সালে সাংগঠিক ও আর্থিক আধিপত্য বিস্তার নিয়ে অটোটেম্পু ও ইজিবাইক মালিক- শ্রমিক সমিতির দুই পক্ষের রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষে মারা যায় শফিকুল ও সোহাগ নামের দুই শ্রমিক। পরে ওই অটোটেম্পু মালিক সমিতি ভগ্নদশার ওই স্তম্ভটিতে নিহত দুই শ্রমিকের নামের সাইন বোর্ড লাগিয়ে দখলে রাখে। এমন অবস্থায় মহান মুক্তিযুদ্ধের পক্ষের এবং সচেতন মহলের দাবীর প্রেক্ষিতে আদমদীঘি উপজেলার বর্তমান নির্বাহী অফিসার টুকটুক তালুকদার শহীদ বীর মুক্তিযোদ্ধাদের নামের স্মৃতিস্তম্ভটি দখল মুক্ত এবং নতুন নক্সায় পুনঃনির্মানের উদ্যোগ গ্রহন করে। তার পরামর্শে সান্তাহার পৌরসভা কর্তৃপক্ষ দরপত্র আহবান করে। নতুন নক্সায় ২১ ফুট উচ্চতায় নির্মিত এই স্তম্ভটিতে চার শহীদ মুক্তিযোদ্ধার নামের চার সড়কের নামের পাশাপাশি স্তম্ভের উপড় অংশে থাকছে টাইলসে খচিত মহান আল্লাহর ৯৯ নাম। এবিষয়ে পৌরসভার নির্বাহী প্রকৌশলী রেজাউল করিম সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, আগামী এক থেকে দেড় মাসের মধ্যে নির্মান কাজ সম্পন্ন করে উদ্বোধন করা হবে।

Please Share This Post in Your Social Media

এই বিভাগের আরও খবর
Copyright &copy 2022 The Daily Uttar Kon. All Rights Reserved.
Powered By Konvex Technologies